আমার ব্রাহ্মণবাড়িয়া।।

ফাহিম মুনতাসির:

গতকাল বিকালে আল্লামা জুবায়ের আহমেদ আনসারী মারা গেছেন।এই ব্যক্তির পরিচয় আশা করি সবার জানা।সে শুধু ব্রাহ্মণবাড়িয়া নয়,সমস্ত বাংলাদেশের একজন নামকরা বক্তা।কাল থেকে আচ করতে পারছিলাম যে,আগামীকাল বড়সড় একটা জমায়েত হতে যাচ্ছে।তাই হলো!
এখন অনেকে হুজুরকে গালি দিচ্ছে তোহ আবার অনেকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলাকে।এখন এটা কি হুজুরের দোষ যে তার জানাজায় মানুষের জমায়েত হয়েছে নাকি ব্রাহ্মণবাড়িয়া শহরের দোষ যে এমন একজন আলেম ব্রাহ্মণবাড়িয়া তে জন্ম নিয়েছে?

 

ফেসবুকে ঢুকলে গালাগালি চলছে,গ্রুপে গালিগালাজ চলতেছে,বুঝে না বুঝে গালি দিচ্ছে। মেইন টপিক একটাই “ব্রাহ্মণবাড়িয়া”।
এখন আসি আসল কথায়,আল্লামার জানাযায় শুধুমাত্র ব্রাহ্মণবাড়িয়া নয়, আশেপাশের বিভিন্ন জেলার যেমনঃ নরসিংদী,হবিগঞ্জ,কিশোরগঞ্জ,সিলেট ইত্যাদি থেকে মানুষ এসেছে।তারা যে এসেছে এটা ও কি ব্রাহ্মণবাড়িয়ার দোষ? নাকি ব্রাহ্মণবাড়িয়ার মানুষ বাসা থেকে তাদের নিয়ে এসেছে?

এখন আসি ঝগড়া ঝাটির ব্যাপারে।গত দু-তিন সপ্তাহ ধরেই খবরের কাগজ,টিভির হেডলাইন,ফেসবুক সবকিছুতে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নিউজ।ব্রাহ্মণবাড়িয়ার মানুষ ঝগড়াটে, বর্বর,অশিক্ষিত ইত্যাদি ইত্যাদি।তোহ কথা হচ্ছে ঝগড়া কোন জায়গায় না হয়? কোন এমন ফেরেশতাদের জায়গা আছে বাংলাদেশে যেখানে ঝগড়া হয় না? ঠিকানা দিন,সেখানে চলে যাব সারাজীবনের জন্য।
হ্যা,প্রশ্ন করতে পারেন এই সময়টাতে ঝগড়া করা কি ঠিক? অবশ্যই না।কিন্তু তাই বলে এভাবে সবাই মিলে এক জায়গার পিছনে লেগে পড়লেন ঝগড়ার বিষয় কেন্দ্র করে? বাহ! বাঙালি আর কিছুতে একতা দেখাতে পারুক আর না পারুক, অন্যের সম্মানহানিতে একতার দেখা মিলবেই।
আর কিছু ফেসবুক রিনাউনেড পার্সন আছেন, যারা এখন হাসিতামাশা করে যাচ্ছেন এই জেলা নিয়ে।তারা মনে হয় বছরখানেক আগে ও ব্রাহ্মণবাড়িয়া তে ঘুরে গিয়েছেন।ঘুরে যাওয়ার পর তাদের বিশাল বিশাল স্ট্যাটাস দেখেছিলাম আমার জেলার ভূয়সীপ্রশংসায়।কিন্তু এখন দেখছি তারা মুখোশওয়ালা।তারাই এখন ট্রল করে বেড়াচ্ছে,মজা নিচ্ছে।বারোবাতারি হওয়ার একটা লিমিট আছে রে ভাই!
অশিক্ষিত,বর্বর,আদিমযুগ এর তকমা ঝুলিয়ে দিচ্ছে নামের পাশে।তোহ ভাই এত শিক্ষিত হয়ে লাভ কি? সেই তোহ ঘুরেফিরে ৬০০০টাকার বালিশ কিনবে আর ৫০০০ ক্যারিং খরচ নিবে সরকার থেকে।

যাজ্ঞে, আমার জেলার একটা নয়, হাজারখানেক দোষ।কিন্তু বাংলার কোন জায়গার মানুষই ধোয়া তুলসি পাতা না।যারা ট্রল না করে, খবরের কাগজ আসলেই ঘাটাঘাটি করে তাদের আসলে বোঝার কথা। আর বাকি অবুঝদের,বোঝানোর ঠ্যাকা আমি নেই নাই।

আর নিজ জেলার কিছু আল্ট্রা মডার্ণ, খ্যাতদের বলতে চাই।তোমরা যারা অপরের সাথে তাল মিলিয়ে নিজের জেলার বদনাম করে যাচ্ছো,, তাদের প্রোফাইলে আমি এখনো (ব্রাহ্মণবাড়িয়ার ওষুধের মূল্য হ্রাসের) গর্বিত স্ট্যাটাস খুজে পাচ্ছি। তোহ তোরা এমন বারোবাতারি কেন?

বাংলাদেশ এখন বাংলাদেশের জন্য রিস্ক।মিলাদ,ওয়াজ সবজায়গায় হয়েছিল,হচ্ছে।চাল চুরি,তেল চুরি সব জায়গায় হচ্ছে।ঝগড়া-বিবাদ সব জায়গায় হয়(কোথাও কম,কোথাও বেশি)।কোন এলাকার মানুষই লকডাউন মানছে না।অপরের দোষ না খুজে ঘরে থাকি,ভালো থাকি ❤

আর যদি ট্রল করে,পরের সম্মানহানি করে ভালো থাকা যায় তাহলে তোমরা দীর্ঘজীবী হও ❤

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এই বিভাগের আরো খবর

ফেসবুকে আমরা..