ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় দ্বিতীয় দিনও কঠোরভাবে পালিত হচ্ছে লকডাউন


স্টাফ রিপোর্টার,ব্রাহ্মণবাড়িয়া
করেনাভাইরাসের উর্ধ্বগতিরোধে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় দ্বিতীয় দিনও কঠোরভাবে পালিত হচ্ছে সরকার ঘোষিত সর্বাত্বক লকডাউন। লকডাউন কার্যকর করতে গতকাল শুক্রবারও সেনাবাহিনী, বিজিবি, পুলিশ ও র‌্যাবসহ আইন-শৃংখলাবাহিনীর সদস্যরা শহরে টহল দিচ্ছেন।

জেলা সদরসহ জেলার ৯টি উপজেলাতেই উপজেলা নির্বাহী অফিসার, উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) ও জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেটগন মাঠে রয়েছেন। শহরের গুরুত্বপূর্ন পয়েন্টগুলোতে আইন-শৃংখলাবাহিনীর সদস্যগন মানুষকে দাঁড় করিয়ে শহরে ঢোকার কারন জানতে চাইছেন। প্রথমদিনের তুলনায় শুক্রবার শহরে মানুষের উপস্থিতি ছিলো খুবই কম।
মহাসড়কগুলোতে বাস চলাচল বন্ধ ছিলো। তবে শহরে সীমিত সংখ্যক রিকসা চলাচল করতে দেখা গেছে। পন্যবাহি কয়েকটি ট্রাককে শহরে প্রবেশ করতে দেখা গেছে। শহরের সকল শপিং কমপ্লেক্স, মার্কেট ও বিপনী বিতানগুলো বন্ধ রয়েছে। তবে জরুরি সেবায় নিয়োজিত প্রতিষ্ঠানসমূহ খোলা রয়েছে।

লকডাউনের প্রথমদিন বৃহস্পতিবার সকাল থেকে রাত পর্যন্ত সরকারি নির্দেশনা অমান্য করে মাস্ক না পরা, লকডাউনে দোকান খোলা রাখা, অযথা বাইরে ঘুরাফেরা, সামাজিক দূরত্ব না মানা, মোটর সাইকেল নিয়ে অযথা ঘুরাফেরাসহ বিভিন্ন কারনে জেলার ৯টি উপজেলায় ১৫৪ জনকে ৮৮ হাজার ১৫০ টাকা টাকা জরিমানা করেছে ভ্রাম্যমান আদালত।

লক ডাউনের দ্বিতীয় দিনে শুক্রবার দুপুর ১২টায় বিজয়নগর উপজেলার আমতলী বাজারে সরকারি নির্দেশনা অমান্য করে দোকান খোলার দায়ে ২টি দোকানে অভিযান চালিয়ে ১৫ হাজার টাকা জরিমানা এবং অহেতুক মোটর সাইকেল নিয়ে ঘুরাফেরা ও অকারনে রাস্তায় ঘুরাফেরার জন্য ৩ জনকে ১ হাজার ২শ টাকা জরিমানা করেছেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট কে.এম. ইয়াসির আরাফাত।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এই বিভাগের আরো খবর

ফেসবুকে আমরা..