আশুগঞ্জে সাইলোর নির্মানকাজ পরিদর্শনকালে খাদ্য মন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার

স্টাফ রিপোর্টার,ব্রাহ্মণবাড়িয়া
খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার এমপি বলেছেন, ২০২৫ সালের মধ্যে ৩৫ লাখ মেট্টিকটন খাদ্য শস্য মজুদের লক্ষ্যমাত্রা নিয়ে কাজ করছে সরকার। ইতোমধ্যে ৩০টি পেরি সাইলো একনেকের বৈঠকে পাশ হয়েছে। বিভিন্ন জেলায় ৫টি সাইলো নির্মাণের জন্য টেন্ডারের কাজ প্রক্রিয়াধীন।  আজ দুপুরে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জে ১লাখ ৫হাজার মেঃ টন ধারণ ক্ষমতা সম্পন্ন আধুনিক ষ্টীল সাইলো নির্মানকাজ পরিদর্শন শেষে উপস্থিত সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এসব কথা বলেন।

চাল আমদানি বিষয়ে মন্ত্রী বলেন, দেশে চালের চাহিদা না থাকলে চাল আমদানি করা হবে না। চালের চাহিদা থাকলে আমদানি করা হবে। চাহিদার সময় চাল আমদানি করা না হলে চালের দাম একশ টাকা কেজি হতো। প্রয়োজন হলে আমদানি হবে। প্রয়োজন না হলে আমদানি হবে না। তিনি আরো বলেন, খাদ্য উৎপাদন বাড়ানোর জন্য কৃষি যান্ত্রিকিকরণ সহ কৃষকদের ভর্তুকী ও প্রণোদনার ব্যবস্থা করছে সরকার।

সরকারি খাদ্য গুদামে চুক্তি অনুযায়ী মিল মালিকদের কাছ থেকে চাল সংগ্রহের বিষয়ে মন্ত্রী বলেন, চুক্তি অনুযায়ী মিল মালিকরা খাদ্য গুদামে চাল সরবরাহ না করলে তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে। আশুগঞ্জে আধুনিকখাদ্য সংরক্ষণাগার প্রকল্প কাজের অগ্রগতিরবিষয়ে মন্ত্রী বলেন, ৫৪০ কোটি ৪৫ লাখ, ৪৯ হাজার ২৬৪ টাকা ব্যয়ে প্রকল্পটি ২০২০ সালের ৩ এপ্রিল কাজ শেষ করার কথা থাকলেও করোনা ও নানা জটিলতার কারনে কাজের দেরি হচ্ছে। চলতি বছরের সেপ্টেম্বরের মধ্যে কাজ শেষ করার কথা রয়েছে। এর মধ্যে কাজ শেষ করতে পারবে কিনা তা দেখতেই আমরা পরিদর্শনে এসেছি।

সময় বাড়ার কারনে ব্যয় বাড়বে কিনা, সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নে মন্ত্রী বলেন, আরো ছয় মাস সময় বাড়লেও ব্যয় বাড়ার কোন সম্ভাবনা নাই।
সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন ১০লাখ রোহিঙ্গাকে পুষতে হচ্ছে। প্রতিবছর রোহিঙ্গাদের ২০ হাজার শিশু জন্ম নিচ্ছে। এদেরকে খাওয়ার ব্যবস্থা করেছে সরকার।

পরিদর্শনকালে মন্ত্রীর সাথে ছিলেন, সংরক্ষিত নারী আসনের সংসদ সদস্য উম্মে ফাতেমা নাজমা বেগম (শিউলী আজাদ), খাদ্য ড. মোছাম্মৎ নাজমানারা খানুম, জেলা প্রশাসক হায়াত-উদ-দৌলা খান, পুলিশ সুপার মোহাম্মদ আনিছুর রহমান, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক আল মামুন সরকার, আধুনিক ষ্টীল সাইলো প্রকল্পের প্র্রকল্প পরিচালক মোঃ রেজাউল করীম শেখ, উপজেলা নির্বাহী অফিসার অরবিন্দ বিশ্বাস, জেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক সুবীর নাথ চৌধুরী, ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রেসক্লাবের সভাপতি রিয়াজ উদ্দিন জামি প্রমুখ।

পরে মন্ত্রী আশুগঞ্জ পাওয়ার স্টেশন কোম্পানীর মিলনায়তনে চলতি বোরো সংগ্রহ অভিযানের বিষয়ে চাতাল ব্যবসায়ীদের সাথে মতবিনিময় করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এই বিভাগের আরো খবর

ফেসবুকে আমরা..