দীর্ঘদিন ভারতে নিখোজের পর আখাউড়া স্থল বন্দর দিয়ে দেশে ফিরলেন দুই বাংলাদেশী

স্টাফ রিপোর্টার,ব্রাহ্মণবাড়িয়া
দীর্ঘদিন ভারতে নিখোঁজ থাকার পর সমীর কুমার মজুমদার-(৫০) ও শায়েস্তারা বেগম ওরফে শালিনতারা-(৪৫) নামে দুই বাংলাদেশী গতকাল শুক্রবার নিজ দেশে ফিরে এসেছেন। শুক্রবার দুপুরে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়া স্থল বন্দর দিয়ে তারা দেশে ফেরেন।
সমীর কুমার মজুমদার ফরিদপুর জেলার ভাঙ্গা উপজেলার কুমারপাড়া গ্রামের শশধর মজুমদারের ছেলে এবং শায়েস্তারা বেগম ওরফে শালিনতারা ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগর উপজেলার গুড়িগ্রামের আসমত আলীর কন্যা ও ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবা উপজেলার দেলী গ্রামের সিরাজুল ইসলামের স্ত্রী। এদের মধ্যে সমীর কুমার মজুমদার প্রায় ৯ বছর এবং শায়েস্তারা বেগম ওরফে শালিনতারা ৫ বছর ধরে ভারতের ত্রিপুরা রাজ্যের আগরতলায় ছিলেন।

ভারতের ত্রিপুরা রাজ্যের আগরতলাস্থ বাংলাদেশ সহকারি হাই কমিশন সূত্রে জানা গেছে ওই দুইজন আগরতলার মডার্ণ সাইক্রিয়াটিক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন। বাংলাদেশের সমাজকর্মী সৈয়দ খায়রুল আলম ওই দুইজনের পরিচয় সম্পর্কে নিশ্চিত হয়ে সংশ্লিষ্ট দপ্তরকে অবহিত করেন। এ বিষয়ে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা মোতাবেক তাদেরকে হস্তান্তর করা হয়।
সমীর কুমার মজুমদারের ছোটভাই অসীম কুমার মজুমদার বলেন, ২০১৩ সালের ২৪ অক্টোবর নিজ বাড়ি থেকে নিখোঁজ হন সমীর কুমার। তিনি মানসিকভাবে ভারসাম্যহীন ছিলেন। দেড় বছর আগে জানতে পারেন তাঁর ভাই আগরতলার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন। ভাইকে ফিরে পেয়ে অনেক আনন্দিত বলে জানান তিনি।

মানবাধিকার কর্মী সৈয়দ খায়রুল আলম বলেন, আমি আমার নিজ এলাকার (নড়াইল) একটি মেয়েকে খুঁজতে আগরতলার মডার্ণ সাইকিয়াট্রিক হাসপাতালে যাই। সেখানে গিয়ে সমীর ও শায়েস্তারা ওরফে শালিনতারার খোঁজ পাই।
পরে তাদের ঠিকানা যোগাড় করে স্বজনদের সাথে যোগাযোগ করি। দীর্ঘ প্রক্রিয়া শেষে দুই দেশের হাই কমিশন ও পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সহযোগীতায় অবশেষে শুক্রবার দুপুরে তাঁদেরকে দেশে ফিরিয়ে আনা হয়। তাদেরকে স্বজনদের কাছে ফিরিয়ে দিতে পেরে আমি অনেক আনন্দিত।
####

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এই বিভাগের আরো খবর

ফেসবুকে আমরা..